কিভাবে কিটেনকে পটি ট্রেইন করবেন (How to potty train kitten)

কিভাবে কিটেনকে পটি ট্রেইন করবেন (How to potty train kitten)

এই পোস্টটি পেটবাংলা’র নিজস্ব সম্পদ যা কপিরাইট আইন অনুযায়ী অনুমতি ছাড়া কপি করা কিংবা ব্যবহার করা সম্পূর্ণ দণ্ডনীয় অপরাধ। শেয়ার করার জন্য দয়া করে লিঙ্ক শেয়ার করুন।

অনেকেই বিড়াল পছন্দ করেন কিন্তু টয়লেটের অসুবিধা আর ঘরবাড়ি নোংরার ভয়ে পালতে চান না।কিন্তু আপনি যদি আপনার বিড়ালকে পটি ট্রেইন করে নিতে পারেন তাহলে ওদের পালা তেমন কোন ব্যাপারই লাগবেনা

যত ছোট কিটেন হবে তত সহজে ট্রেইন করতে পারবেন।

ঃসাধারণত বিড়াল বালি বা মাটিতে টয়লেট করার প্রবনতা থাকে,তাই এদের লিটার এর সাথে অভ্যস্ত করা অনেকটা সহজ।

কিটেন মা বিড়ালকে দেখেই শিখে যায় ২/৩ সপ্তাহের মধ্যে নিজে নিজে লিটার ব্যাবহার করা,শুধু খেয়াল রাখতে হবে যেন বক্স তার আশে পাশে থাকে।

আর যদি আপনি কিটেন দিয়েই পালা শুরু করে,তাহলে খেয়াল করতে হবে যে টয়লেট পেয়েছে কিনা, বিড়াল বাথরুম পেলে পা দিয়ে মাটি আঁচড়ায় তখন তাকে সাথে সাথে লিটার বক্সে দিয়ে আসুন। কিছুদিন এমন করলে আপনা আপনি সে শিখে যাবে।

প্রথম প্রথম নাই ব্যাবহার করতে চাইতে পারে তাই বক্সে কিছু খেলনা যা সে পছন্দ করে রেখে দিন।

বিড়াল টয়লেট এর পর বালু বা মাতি দিয়ে ঢেকে দিতে চায় তাই বক্সে পর্যাপ্ত বালি বা লিটার দিয়ে রাখতে হবে

লিটার বক্স অবশ্যই পরিষ্কার অর শুকনো রাখতে হবে,সাথে  দুর্গন্ধ যেন না হয় তার ও খেয়াল রাখতে হবে।দিনে অন্তত ২বার লিটার বদলে দিন।

আপনার বিড়াল সবসময় যাতায়াত করতে পারে এমন জায়গায় বক্সটি রাখুন,কিন্তু পাশে ফুলের টব,কাপড় আছে এমন জায়গায় দিবেন না।এতে করে অরা লিটার বক্স নাও ব্যাবহার করতে পারে

বক্সের সাইজ ঠিক করতে হবে বিড়ালের সাইজ অনুযায়ী, তার যেন বসতে অসুবিধা না হয় অমন সাইজের বক্স নির্ধারণ করতে হবে নইত ব্যাবহার করতে চাবে না।

বাজারে ঢাকনাযুক্ত বক্স পাওয়া যায় অইগুলু কিনতে পারেন,অনেক বিড়ালই তা পছন্দ করে।

সহজে বাতাস চলচল করে এমন জায়গায় বক্সটি রাখার চেষ্টা করুন।

বি.দ্রঃগর্ভবতীদের লিটার বক্স পরিষ্কার না করাই ভাল কারন তাদের toxoplasmosis হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

1 Comment

  • Great delivery. Great arguments. Keep up the good spirit. Tressa Wait Zischke

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are makes.

error: Content is protected !!